এবার এক অন্য ব্যক্তির সাথে বিশেষ ভিডিও ভাইরাল রিয়ার, ভিডিও ভাইরাল হতেই চর্চায় নেটপাড়া, রইলো ভিডিও

সুশান্তের মৃ-ত্যুর পর অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর বি-রু-দ্ধে খুবই সোচ্চার হয়েছেন আপামর দেশবাসী । সম্প্রতি অভিনেত্রী রিয়া এবং মহেশ ভাটের চ্যাটের স্ক্রীনশট প্রকাশিত হয়েছে। এমনিতেই প্রথমে রিয়া, সুশান্তের মৃ-ত্যুর পর সিবিআই ত-দ-ন্তে-র দাবি করেছিলেন। কিন্তু তার পরেই তিনি এক প্রকার তদন্ত থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন। তারপর ইডির হাতে বেশ কিছু তথ্য আছে জিয়ার বহু টাকার সম্পত্তির বিষয়ে।

সুশান্তের পিতা রিয়া এবং তার ভাই সৌভিক সহ আরও কয়েকজনের বি-রু-দ্ধে বিহারের পাটনার রাজীব নগর থানায় অভি-যোগ দা-য়ে-র করেন। মহেশ ভাট নাকি রিয়াকে সুশান্তর কাছ থেকে বেরিয়ে আসার পরামর্শ দিয়েছিলেন। প্রকাশিত হওয়া রিয়া এবং মহেশ ভাটের স্ক্রীনশট থেকেও এই বিষয়টি পরিস্কার হয়েছে। এক সময় জোর গুঞ্জন উঠেছিল রিয়া চক্রবর্তী এবং মহেশ ভাট এদের দুজনের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে।

দুজনের বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ ছবি এবং ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এমনিতেই মহেশ ভাটের সঙ্গে খুব একটা সিনেমা রিয়া করেননি, কিন্তু মহেশ ভাটের সাথে ব্যাপক ওঠা বসা ছিল রিয়ার। সুশান্তের মৃ-ত্যুর আগে ৮ ই জুন রিয়া সুশান্তের সাথে সম্পর্ক শেষ করে তাঁর ফ্ল্যাট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন। এই তথ্য প্রকাশিত হতেই রিয়া চক্রবর্তীর বি-রু-দ্ধে সোচ্চার হয়েছে দেশবাসী।

সুশান্তের ভক্তরা বারবার রিয়া চক্রবর্তী কে ইন্ডাস্ট্রি থেকে ব্যান করে দেওয়া এবং তার প্রে-প্তা-রি-র দা-বি জানিয়ে আসছেন।সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে আরেকটি ভিডিও যেখানে দেখা যাচ্ছে মহেশ ভাটের ভাই মুকেশ ভাটের সাথে আলি-ঙ্গন রত অবস্থায় রিয়া চক্রবর্তী কে। মুকেশ ভাট কে দেখতে পেয়েই এগিয়ে গিয়ে তাকে আলিঙ্গন করেন রিয়া চক্রবর্তী। তারপর মুকেশ ভাটকে ধরে সাংবাদিকদের ক্যামেরায় বিশেষ ভঙ্গিতে ছবি তোলেন রিয়া এবং মুকেশ ভাট।

এই ভিডিওটি নেট পাড়ায় খুবই ভাইরাল হয়েছে। সুশান্তের আপামর ভক্তগণ দাবি করছেন রিয়া চক্রবর্তী হলেন একজন সুবিধাভোগী অভিনেত্রী। তিনি তার ফায়-দার জন্য অনেক নিচে নামতে পারেন। এরকমই কমেন্ট করেছেন অনেক নেটিজেনরা। রিয়া চক্রবর্তীর নেগেটিভ পাবলিসিটি হয়েছে আকাশ ছোঁয়া। জানা গেছে খুব শীঘ্রই সিবিআই ত-দ-ন্তের নিরিখে জে-রার মুখে পড়তে চলেছেন রিয়া চক্রবর্তী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button