মহিলা ধর্ষণ রোধে অভিনব ডিভাইস আবিষ্কার মেধাবী ছাত্রের, কোনো নারীকে ধ’র্ষণ করতে আসলেই 1200 ভোল্টের শক খাবে ধর্ষক!

নিজস্ব সংবাদদাতা: একবিংশ শতাব্দীতে এসেও না’রী শ্লী’ল’তাহানির রেশ বিন্দুমাত্র কমেনি। এখনো প্রতিদিনের নিউজ চ্যানেল কিংবা খবরের কাগজ খুললেই দেখা যায় নারী নি’র্যা’তন এবং ধ’র্ষ’ণের ঘটনা।সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের হাতরসে ঘটে যাওয়া ধ’র্ষ’ণ কাণ্ড নিয়ে উত্তাল সারাদেশ। এই ঘটনায় ক্ষু’ব্দ হয়ে আছে দেশের জনগণ। তবে শুধু এই একটি ঘটনাতেই শেষ নয়। দেশের বিভিন্ন কনে প্রতিদিন ঘটে যাচ্ছে এরকম আ’শ’ঙ্কা’জনক ঘটনা।দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লকের তিলাবনি গ্রামের এক সাধারন পরিবারের ছেলে,

নাম সৈয়দ মোশারফ হোসেন,বয়স কুড়ি বছর। চারদিকের এই খারাপ সময়ে তিনি মহিলাদের জন্য বানিয়েছেন ইন্টিগ্রেটেড এলার্ট সিস্টেম। ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং এর তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সৈয়দ এই যন্ত্রটি বানিয়ে যারপরনাই খুশি।মহিলাদের শ্লী’ল’তাহানি কিংবা ধ’র্ষ’ণের ঘটনার মুহূর্তে দু’ষ্কৃ’তীরা সবার প্রথমে মহিলাদের হাত পা বেঁ’ধে ফে’লায় কোন রকম ভাবে তারা কাউকে ফোন করতে পারেন না,সহযোগিতা চাইতে পারেন না।

এমনকি বুক বেঁধে দিলে চি’ৎ’কার করার উপায়ও ব’ন্ধ।এই কথা মাথায় রেখে তিনি বানিয়েছেন স্মার্ট জুতো, এর দাম সাধারণ জুতার মতই সাধ্যের মধ্যে। দেখতে সাধারণ এই জুতোর মধ্যেই রয়েছে জিপিএস এবং জিএসএম টেকনোলজি।সৈয়দ জানিয়েছে দু’ষ্কৃ’তীরা মহিলাদের ধরে টানাটানি করার মুহূর্তে এই স্মার্ট জুতো দুষ্কৃতীদের প্রতি দু সেকন্ডে 1200 ভোল্টের শক দেবার ক্ষ’মতা রাখে।

এই জুতোর মধ্যেই রয়েছে পাওয়ার শক জেনারেটর।এর সঙ্গে জুতোতে থাকা জিএসএম সিস্টেম আগের থেকেই সেট করে রাখা পাঁচটি নম্বরে সেই মহিলার লোকেশনের অ্যাড্রেস এসএমএস করে পাঠাতে থাকে।এই যন্ত্রটি আ’বিষ্কার করে সৈয়দ মহিলাদের সুর’ক্ষার জন্য যে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছেন তার জন্য সকলেই তাঁর প্রশংসা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button