ঝাড়গ্রামে গিয়ে কনক দুর্গা মন্দিরে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী, দিলেন 2কোটি টাকা অনুদান!

নিজস্ব সংবাদদাতা: বুধবার প্রশাসনিক বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঝাড়গ্রাম জেলার তিনটি ঐতিহ্যবাহী মন্দির ট্রাস্টের প্রত্যেককে এক কোটি টাকা। অনুদানের ঘোষণা করেছিলেন।

গুপ্ত মণি মন্দির ট্রাস্ট, রামেশ্বর মন্দির ট্রাস্ট এবং ঝাড়গ্রামের কনক দুর্গা মন্দির ট্রাস্ট এই অনুদানগুলি গ্রহণ করবে। মন্দিরগুলি ছাড়াও মমতা ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে এক কোটি টাকা অনুদানেরও ঘোষণা করেছিলেন।

“ঝাড়গ্রাম জেলার প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভায় কনক দুর্গা মন্দির সংস্কারের জন্য ২ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। বৈঠক শেষে আজ ঝাড়গ্রামের কনক দুর্গা মন্দির গিয়েছিলাম এবং মায়ের কাছে বাংলার মানুষের জন্য প্রার্থনার করেছি। মায়ের আশীর্বাদে মুক্ত হোক বিশ্ব। সমস্ত ভাল শক্তি মায়ের আশীর্বাদে খারাপ শক্তিকে দূর করুক। ”

ঝাড়গ্রাম এলাকা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার অন্তর্ভুক্ত ছিল, যা পরে একটি জেলা হিসাবে আলাদা করে দেওয়া হয়েছিল। এই জেলাটি জঙ্গলমহল এলাকার অন্তর্গত, এই জঙ্গলমহল উপজাতি বেল্ট যেখানে বামফ্রন্টের শাসনকালে মাওবাদীদের প্রচন্ড তৎপরতা ছিল।

মাওবাদী নেতা কিশেনজির মুখোমুখি সংঘ-র্ষের পরে এবং পরবর্তীকালে অন্যান্য মাওবাদী কর্মীদের আ-ত্মস-ম-র্পণের পরে, মাওবাদী তৎপরতা বন্ধ হয়ে যায়। ছত্রধর মাহাতো পিপলস কমিটি এগেইনস্ট পুলিশ অ্যাট্রোসিটিস (পিসিপিএ)-এর আহ্বায়ক এবং তৃণমূল কংগ্রেসের (টিএমসি) রাজ্য কমিটির সদস্য।

বর্তমান টিএমসি এই এলাকায় ভোটারদের আস্থা ফিরে পাওয়ার জন্য মরিয়া। COVID-19 ম-হা-মা-রীর মধ্যে লকডাউন উঠে যাওয়ার পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জঙ্গলমহলে প্রথম পা রাখলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সফরের মাধ্যমে জঙ্গলমহল তথা ঝাড়গ্রাম জেলার বাসিন্দাদের মন বুঝে নিলেন আগামী বিধানসভা ভোটের আগে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button