দুর্দান্ত গতিতে অসাধারণ কায়দায় স্কাইডাইভিং করে গিনেস বুকে নাম তুললেন 103 বছরের বৃদ্ধা, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিভিন্ন বিভিন্ন রকম আজব ঘটনার সম্মুখীন হয়ে থাকি । এবং মূলত এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে আমরা থাকতে পারি সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন। সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল নামক শব্দটি যেন নামক শব্দটি যেন ভীষণ ভাবে জড়িয়ে আছে সমস্ত ঘটনাকে সাথে ।

কখনো সোশ্যাল মিডিয়া হাত ধরে উঠে এসেছে কোন আদিবাসী সম্প্রদায় এর মানুষ তো কখনো আবার কোন তারকার উঠে এসেছে বিতর্কের মঞ্চ থেকে । মাঝে মাঝে শিক্ষামূলক ভিডিও আমাদের চোখের সামনে উঠে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়া হাত ধরে । কিন্তু এবারে যে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে অন্যান্য বাকি সব থেকে আলাদা এবং রীতিমতো বিস্ময়কর ব্যাপার কি সেই ঘটনা জানাবো আপনাদের।

গ্রিনিস ওয়ার্ল্ড বুকে বুকে নাম আমরা সকলে জানি । বিশ্বের অসম্ভব কাজগুলি যারা করে থাকেন তারা এই বুকে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করে । এবং প্রত্যেকের কাছেই গ্রিনিস বুকে নিজের নাম নথিভুক্ত করা এক বড়োসড়ো স্বপ্নের কাছাকাছি । কিন্তু কত বয়সে গ্রিনিস বুকে নাম করার নাম করার করার এই প্রবণতা থাকে ?

খুব বেশি হলে ৩০ বা তারও বেশি হলে ৪০ বছর বয়সে। কিন্তু তারপর বয়স বেড়ে যাওয়াতে তেমন আগ্রহ থাকে না। সম্প্রতি এমন একটি ঘটনা ঘটেছে যা শুনলে অবাক হবেন আপনিও । সেই ঘটনা মাধ্যমে ওই যুবক বৃদ্ধ প্রমান করে দিয়েছেন আরো একবার যে বয়স শুধুমাত্র একটি সংখ্যা।

আলফ্রেড আল বাক্সি নামের ওই ১০৪ বছরের বৃদ্ধ ১৪ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে করলেন স্কাই ড্রাইভিং। কি অবাক হলেন তো? যেখানে তাবড় তাবড় কম বয়সের ছেলেমেয়েদের রীতিমতো ভয়ে বুক কেঁপে ওঠে সেখানে এত বছর বয়সেও ১৪ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে করলেন স্কাইডাইভিং ? ইয়ার্কি হচ্ছে মশাই? কিন্তু বাস্তবে এমনটাই ঘটেছে।

সূত্রানুসারে জানা যাচ্ছে ওই বৃদ্ধ তার নাতিদের কথা দিয়েছিলেন যে তারা গ্রাজুয়েট হলে তিনি এরকম দুঃসাহসিক কাজ করবেন এবং রীতিমত তিনি করেছেন । তবে তার মুখে কোন ভয় বা আতঙ্কে চিহ্ন দেখা যায়নি। মুখে সবসময় থেকে হাসি । সম্প্রতি এই ভিডিওটি নজর কেড়েছে নেটদুনিয়ায় নেটিজেনদের। এবং যা মুহূর্তের মধ্যে হয়েছে ভাইরাল ।

এবং তার সাথে সাথে তিনি স্থান করে নিয়েছেন গ্রিনিস ওয়ার্ল্ড বুকে । যদিও তার এই ধরনের কোন উদ্দেশ্য ছিল না । কিন্তু এত বছর বয়সী বৃদ্ধ এত ফুট উচ্চতা থেকে এরূপ দু সাহসিক কাজ করাতে রীতিমতো স্তম্ভিত এবং অনুপ্রাণিত অনেকেই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button