যে দশ খাবার কমিয়ে দেয় যৌ’ন ইচ্ছা!

যৌনতা শব্দটি শুনতে অতি খারাপ মনে হলেও বর্তমানে এই শব্দটির সাথে প্রত্যেকটি মানুষ ওয়াকিবহাল।যৌনতা নিয়ে বহু বুদ্ধিজীবী কিছু লেখকের সম্পূর্ণ মত প্রকাশ করেছেন এমনকি সাধারণ মানুষেরা প্রতিনিয়ত আলমগীর কোন ইস্যুকে কেন্দ্র করে নিজেদের ভাব বোঝানোর চেষ্টা করছেন
যৌনতা অর্থাৎ শারীরিক চাহিদা মিলন যেমন প্রত্যেকটি নারী-পুরুষের একটি দিক তেমনি এর মধ্যেও থাকে ভালোবাসা।

বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে আমাদেরকে প্রতিনিয়ত গ্রহণ করতে হচ্ছে বাইরের বিষ যুক্ত খাবার ।হয়তো খাবার গুলো দেখতে খুবই সুন্দর কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এই খাবারগুলো কোন না কোনভাবে আমাদের শরীরকে ক্ষতি করছে এর ফলে আমাদের আয়ু যেমন একদিকে কমছে তেমনি তার সাথে সাথে কমছে যৌন ইচ্ছা।

তার ফলস্বরূপ প্রতিনিয়ত কোনো না কোনো পুরুষ কিংবা নারী ডাক্তার এর দোরগোড়ায় সম্মুখীন হচ্ছে। অনেকেই হয়তো জানেন কিছু কিছু খাবার যেগুলো পুরুষদের যৌন শক্তি কে বাড়িয়ে তোলে কিন্তু অনেকেই জানেন না যে কিছু কিছু খাবার যেগুলো পুরুষদের যৌন ইচ্ছাকে বাধা দান করে। এসব খাবার যৌন ইচ্ছাকে বাধা দান করে সেইসব খাবারকে অ্যানাফ্রোডিসিয়াক বলে। বলা যায় যৌন ইচ্ছা থেকে যাতে বিরত না থাকতে হয় তাহলে এইসব খাবারকে কিছুটা এড়িয়ে চলাই ভালো।

1. ক্যানড খাবার: ব্যস্ততার জীবনে আমরা ক্যানড খাবারে কি খুব চটজলদি গ্রহণ করতে ভালোবাসি।কিন্তু এই খাবারের মধ্যেই রয়েছে অত্যধিক পরিমাণে থাকে সোডিয়াম কম পরিমাণে থাকে পটাশিয়াম যা সেক্স অর্গান এ রক্ত চলাচল হতে বাধা দান করে এর ফলে সেক্স অর্গান ক্রমশ ঝিমিয়ে পড়ে। খুব প্রয়োজন না হলে এই ধরনের খাবার এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।

2. অ্যালকোহল: মানুষ মনে করে এই শব্দটির সাথে যদি নিজেকে মানিয়ে নেওয়া যায় তাহলে হয়তো সে জীবনের দুঃখগুলো কেউ ভুলে কিছুটা হলেও বাস্তব জীবনের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারবে।কিন্তু অত্যধিক পরিমাণে এ্যালকোহল সেবনে পুরুষ দেহের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা অত্যন্ত কমে যায় এর ফলে অর্গান শিথিল হয়ে পড়ে স্পার্ম কাউন্ট কমে যায় যা বন্ধ্যাত্ব তার সৃষ্টি করতে পারে এবং যৌন ইচ্ছাকে সম্পূর্ণরূপে বিলীন করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

3. চিজ: চিজ খেতে মজা লাগে কারণ এটি অত্যন্ত সুস্বাদু।হয়তো এটি গরু কিংবা মোষের দুধ থেকে তৈরি করা হয় কিন্তু তৈরি করার পরে এর সাথে মেশানো হয় প্রচুর পরিমাণে গ্রোথ হরমোন এবং অ্যান্টিবায়োটিক। যার ফলে মেয়েদের শরীরে এক ধরনের হরমোনের ক্ষরণ পরিমাণ বেড়ে যায় ফলস্বরূপ শারীরিক মিলন করতে অনীহা হয়। এমনকি কিছু কিছু সেক্সুয়াল ডিসঅর্ডার ও লক্ষ্য করা যায় তাই চিজ খেলে রয়ে সয়েখাওয়াই শ্রেয়।

4. কফি: কফির যেমন উপকারিতা আছে তেমনি অপকারিতাও প্রচুর। অধিক পরিমাণে কফি সেবনের ফলে আমাদের মানব দেহে অ্যাড্রিনাল গ্ল্যান্ড গুলোকে সক্রিয় করে নানা ধরনের স্ট্রেস হরমোন ক্ষরণ বাড়ায়। ধরনের হরমোন আবার সেক্স হরমোন এবং থাইরয়েড এর ব্যালেন্স তারতম্য ঘটিয়ে যৌন ইচ্ছা একদমই কমিয়ে দেয়।

5. সয়া: সয়াবিনের মধ্যে রয়েছে এমন একটি উপাদান যা কিনা অত্যধিক পরিমাণে সেবনের ফলে মানব শরীরে হরমোনের ব্যালেন্স তৈরি করে যা থেকে যৌন শক্তি কিংবা যৌন ইচ্ছা কমতে বাধ্য।

6. পুদিনা: পুদিনা শরীর ঠান্ডা করে ঠান্ডা শরীরে সেক্স ড্রাইভ বাড়বে এমন কথা কখনো শুনেছো? এছাড়া পুদিনার মেন্থল শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

7. কর্নফ্লেক্স: যমহা রোগীকে লোক যিনি কিনা এই বিশ্ব বিখ্যাত খাবারটির আবিষ্কর্তা,না আমাদের শরীরে সেক্স ড্রাইভ এর মাত্রা কমানোর জন্য খাবারটি তৈরি করেছিলেন কিন্তু বর্তমানে এই খাবারটি প্রত্যেকেই অত্যধিক পরিমাণে সেবন করছেন নিজেদের ডায়েট প্ল্যান কে সুরক্ষিত করার জন্য। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন কমপ্লেক্সের থাকা চিনি মানব শরীরে টেস্টোস্টেরন মাত্রা কে অনেকটা কমিয়ে দেয় যার ফলে সৃষ্ট এর পরিমাণ কমতে থাকে যার ফলে তৈরি হয় যৌন মিলনে অনীহা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button