রাজ্যের মন্ত্রিসভার বিশেষ পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো শুভেন্দু অধিকারীকে, ক্ষু’দ্ধ অনুগামীরা

তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতম প্র’ভাবশা’লী মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু বর্তমানে শুভেন্দু অধিকারী কে রাজ্য কর্মচারী ফেডারেশনের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে গত সোমবার তৃণমূল ভবনে আয়োজিত এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। শুভেন্দুর বদলে এই দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে দিব্যেন্দু রায় কে। ভোটের আগেই শীর্ষ নেতৃত্বে এই সি’দ্ধান্তে’র প্রতি’বা’দে স’রব হয়েছেন শুভেন্দুর অনুগামীরা।

শুভেন্দুর অনুগামীরা যথে’ষ্ট ক্ষো’ভ উ’গ’রে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। 2021 সালে নির্বাচন উ’পলক্ষে দলকে ঢেলে সাজাচ্ছে তৃণমূল। তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নি’র্দেশেই এই পরিবর্তন হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।জানা গিয়েছে রাজ্যের পরিবহন সেচ এবং জল সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে রাজ্যের শীর্ষ নেতৃত্বে বেশ কয়েক মাস ধরেই সম্পর্ক টা’নাপো’ড়েন হচ্ছে। লকডাউন এর সময় বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচিতে শুভেন্দুর উপস্থিতি লক্ষিত হয় নি।

কিছুদিন আগেই শুভেন্দুর অনুগামী কথা ময়নার বিধায়ক সংগ্রাম কুমার দোলুই কে জেলা যুব তৃণমূল সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং তার পরিবর্তে বসানো হয়েছিল পার্থ মাইতি কে। এই বিষয়টি নিয়ে ঘনিষ্ঠ মহলে বিস্তর ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছিলেন শুভেন্দু। তার পরেই হঠাৎ রাজ্য কর্মচারী ফেডারেশনের মেন্টর পর থেকে শুভেন্দু কে সরি’য়ে দেওয়া হয়েছে যার দরুন শুভেন্দুর অনুগামীদের মধ্যে ব্যা’পক ক্ষো’ভে’র সঞ্চা’র ঘটেছে।

জানা গিয়েছে গত সোমবার সুব্রত বক্সি এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায় বৈঠক আয়োজন করেছিলেন। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে কমিটি ভে’ঙে দেওয়া হবে। এই কমিটির চিফ মেন্টর পদে আসীন ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী , তার সাথে ছিলেন আরো 3 জন আহ্বায়ক। কিন্তু বর্তমানে দিব্যেন্দু রায় কে 41 জনের এই কমিটির একক দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে।তবে কেন এই পরিবর্তন? জানা গিয়েছে গত কয়েকদিন ধরেই কর্মচারী ফেডারেশন আয়োজিত বৈঠকগুলোতে উপস্থিত ছিলেন না শুভেন্দু অধিকারী।

ফেডারেশনের কাজগুলিতে ততটা আগ্রহ তিনি প্রদর্শন করছিলেন না। যার ফলে ফেডারেশানের সদস্যের মধ্যে বি’স্ত’র ক্ষো’ভ জমা হচ্ছিল। এরপরই শুভেন্দু অধিকারী কে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কিন্তু শুধুমাত্র এই উদ্দেশ্যেই শুভেন্দু অধিকারী কে সরানো হলো বলে মানতে নারাজ রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তারা এই ঘটনার পিছনে অন্য উদ্দেশ্যের আবহাওয়া দেখতে পাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button