তুলসী গাছে জল দেওয়ার সময় এই কথাটি বলুন একবার, পূরণ হবে মনোস্কামনা, হাতে আসবে অর্থ!

আজ আমরা আলোচনা করব হিন্দু শাস্ত্র মতে তুলসী তলায় জল দেওয়ার সময় যে মন্ত্রটি পাঠ করলে সংসারের সুখ ও শান্তির অভাব থাকে না সে বিষয়ে। আমাদের জীবনে প্রতিটা খারাপ সময়ের জন্য আমরা নিজেরাই দায়ী এটা যেমন চরম বাস্তব, ঠিক সেইরূপ কিন্তু শাস্ত্র মতে কেউ যদি হিন্দু শাস্ত্রের নিয়ম রীতিনীতিকে অ-প-মান করে কিংবা অবহেলা করে তাহলে তার ক্ষতি নিশ্চিত।

হিন্দু ধর্ম সম্প্রদায়ের প্রায় সকল বাড়িতে তুলসী গাছ থাকে। আর হিন্দুশাস্ত্র মতে তুলসী গাছ মাতা হিসেবে পূজিত হয়ে থাকে। হিন্দু শাস্ত্রে উল্লিখিত হয়েছে যে, যে গৃহে তুলসী গাছ থাকে এবং তার নিত্য পূজা অর্চনা করা হয় সেই গৃহে অকাল মৃ-ত্যু, শো-কে-র ছায়া সহজে পড়ে না। তুলসী পুজার কয়েকটি নিয়ম ও মন্ত্র আছে যেগুলি প্রতিদিন নিয়মিত পাঠ করলে সমস্ত অমঙ্গল দূর হয়ে যায়।

বাড়িতে কোনো অ-শু-ভ ছা-য়া প্রবেশ করতে পারে না তো কি সেই মন্ত্র তাহলে চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক।
1 তুলসী গাছ সবসময় আপনার বাড়ির মেঝে থেকে সামান্য উঁচু স্থানে রাখবেন এবং দেব লক্ষ্য করবেন সেই গাছের উপর যেন কোনো অপবিত্র ব্যক্তির ছা-য়া না পরে।

2 যদি আপনার বাড়িতে তুলসী গাছ , তুলসী মন্দির থাকে তাহলে প্রতিদিন সেখানে নিষ্ঠা ভাবে জল অর্পণ করা করা উচিত। সন্ধ্যার সময় তুলসী মন্দিরে প্রদীপ অবশ্যই জ্বালাবেন।

3 তুলসী মন্দিরে সন্ধ্যাবাতি প্রদান করার পর আর তুলসী গাছ পর্শ করবেন না। এমনটা করলে তুলসী মাতা রুষ্ট হতে পারে এবং সংসারে অমঙ্গল দেখা দিতে পারে।

4 তুলসী গাছ থেকে পাতা তোলার ব্যাপারে কিছু নিয়ম রয়েছে ।বছরের বা মাসের বিশেষ কিছু দিনে যেমন রবিবার ,সূর্য গ্রহণ, একাদশী এই দিনগুলোতে তুলসী গাছ থেকে পাতা তোলা থেকে বিরত থাকুন। অন্যান্য দিন আপনি তুলসী পাতা অবশ্যই তুলতে পারেন তবে সেটির সন্ধ্যা নামার পূর্বে। তুলসী পাতা তোলার পূর্বে প্রথমে চুটকি বা হাত তালি বাজিয়ে “ওম ভজ্জ্যায় নমঃ” এই মন্ত্র জপ করে তুলসী পাতা তুলবেন

5″ মহাপ্রসাদ জননী সর্ব সৌভাগ্য বর্দ্ধিনী আধ্যি ব্যাধি হরা নিত্য তুলসী ত্ব নমহস্তুতে্” এই মন্ত্রটি জপ করার পরে প্রতিদিন তুলসী গাছে জল অর্পণ করুন। তুলসী মাতাকে স্মরণ করে নিজের মনস্কামনা জানান অবশ্যই আপনার মনস্কামনা পূরণ হবে। এই সকল কাজগুলি আপনি যদি প্রতিদিন নিয়ম মেনে নিষ্ঠা ভাবে করতে পারেন তাহলে আপনার সকল মনস্কামনা পূরণ হবে। সংসারের মধ্যে নেমে আসা সমস্ত কুপ্রভাব কেটে গিয়ে সংসারে সুখ শান্তি নেমে আসবে। জীবনের সমস্ত ক্ষেত্রে আপনি উন্নতি লাভ করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button