বারংবার অ’সংযত মন্তব্যের জে’র, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে দিলীপ ঘোষের বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ দা’য়ের একাধিক বিজেপি নেতার

সামনেই 2021 বিধানসভা ভোট। এই ভোটকে পাখির চোখ করে এগোচ্ছে বিজেপি। ক্রমশই ঘুঁটি সাজাচ্ছে তারা। কিন্তু হয়তো ভাগ্য সাথে নেই রাজ্য বিজেপির তার কারণ রাজ্য বিজেপির বন্দরে দেখা দিয়েছে বড়োসড়ো ভা-ঙ্গ-ন। রাজ্যের রাজনীতিতে গোষ্ঠীদ্ব-ন্দ্ব ক্রমশই প্রকাশ পাচ্ছে বিজেপিতে যার দরুন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করছেন বহু বিজেপি সমর্থক তথা বিজেপি নেতা।

গত সোমবার‌ই তৃণমূলের নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা নিয়ে তৃণমূলে নাম লিখিয়েছেন বিজেপির একসময়ের প্রভাবশালী নেতা এবং মিডিয়া সেলের প্রধান কৃশানু মিত্র। তিনি বিজেপির মিডিয়া সেলের দায়িত্ব পালন করেছিলেন এবং আরএসএসের এক গুরুত্বপূর্ণ পদেও তিনি আসীন ছিলেন। মোট 29 বছর তিনি গেরুয়া শিবিরে কাটিয়েছেন।ক্রমাগত বিজেপি ছেড়ে নেতা কর্মীদের তৃণমূলে নাম লেখানোয় অস্বস্তিতে পড়েছে বিজেপি রাজ্য সংগঠন।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বরাবরই বিত-র্কিত মন্তব্য করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকেন। তার এই মন্তব্যের জেরে বারবার অস্ব-স্তিতে পড়তে হয় বিজেপি দলকে তাই বিজেপির বহু কর্মী এবং নেতা দিল্লিতে কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্বের কাছে দিলীপ ঘোষের বি-রু-দ্ধে অভি-যোগ তুলেছেন। এর ফলস্বরূপ দিল্লিতে দিলীপ ঘোষকে ডেকে পাঠিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা।দিলীপ ঘোষকে তার বক্তব্য প্রসঙ্গে আরো সং-যত হতে নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

এছাড়াও বিজেপির অপ-রাধমূলক যোগ্য নেতা মুকুল রায়ের সাথে দিলীপ ঘোষের সম্পর্ক খুব একটা ভালো নয় কথা বারবার প্রকাশ্যে এসেছে তাই এই নিরিখে বিজেপি দলের গোষ্ঠী-দ্ব-ন্দ্ব প্রকাশিত হয়েছে। এই নিয়ে বিজেপির বহু নেতাকর্মীরা কেন্দ্রের কাছে অভি-যোগ করেছেন যে দিলীপ ঘোষের কারণে বিজেপির দলের মধ্যে ফা-ট-ল ধরেছে। যার জন্যই এদিন জেপি নাড্ডা বৈঠকে দিলীপ ঘোষকে প্রতিটি কর্মী এবং নেতার সাথে সুসম্পর্ক রাখতে বলেছেন। দিলীপ ঘোষকে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন একুশে নির্বাচনে তৃণমূলকে গদিহারা করতে হলে প্রতিটি কর্মীকে একসাথে কাজ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button