সুশান্তের মৃ’ত্যু প্রমাণ, ফাঁ’স হলো সুশান্তের সঙ্গে ম্যানেজার দিশার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট, রইলো সেই স্কিনশর্ট!

দুইমাসের বেশি হয়ে গিয়েছে সুশান্ত আর আমাদের মধ্যে নেই। দুইমাসের বেশি হয়ে গেলো তাঁর সমস্ত স্বপ্ন, আশা, আকাঙ্খা নিয়ে তিনি পাড়ি জমিয়েছেন অমৃতলোকের পথে। তাঁর মৃ’ত্যু’র দুইমাস অতিবাহিত হয়ে যাওয়ার পরেও মানুষের মুখে এখনও শুধু তাঁর‌ই নাম। আসলে এই সদাহাস্যময় মাটির মানুষটিকে কেউই ভুলতে পারবেন না। তাঁর মৃ’ত্যু’র পর তাঁর সমস্ত প্রতিভার দিক গুলো সম্পর্কে আরো জানছে মানুষ আর তত‌ই আরো সকলে ভালোবেসে ফেলছেন সুশান্তকে।

সকলের মনেই একটাই প্রশ্ন যে এমন কি হয়েছিলো যে এরকম সফল কেরিয়ার, এত বিলাস-ব্যাসন, বন্ধু বান্ধব ছেড়ে আ’ত্ম’হ’ত্যার মতো এক ম’র্মা’ন্তিক প’রিণ’তি বেছে নিলেন তিনি ? এখনও এই প্রশ্নের উত্তর ধোঁয়াশায় আবৃত।সুশান্তের মৃ’ত্যু’তে এখনও সরগরম হয়ে রয়েছে গোটা বলিউড। এর মধ্যে বিহার পুলিশ এবং মুম্বাই পুলিশের মধ্যে শুরু হয়েছে সুশান্তের মৃ-ত্যু নিয়ে চা’পানউ’তোর। সুশান্তের পিতা কে কে সিং , সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর বি-রু-দ্ধে এফ‌আইআর দা-য়ে-র করেছেন পাটনার রাজীবনগর থানায়।

সুশান্তের মৃ’ত্যুর প্রায় এক সপ্তাহ আগে তার প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান এর মৃ’ত্যু হয় 14 তলা বিল্ডিং থেকে পড়ে। তারপর এক সপ্তাহ পরে সুশান্তের রহ’স্য’জনক মৃ’ত্যু ঘটে। তারপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি ওঠে দুজনের মৃ’ত্যুর মধ্যে হয়তো কিছু সং-যোগ থাকতে পারে। তাই সুশান্তের মৃত্যুর রহস্য উ’ন্মো’চ’নের জন্য দেশজুড়ে সিবিআই তদ’ন্তে’র দাবি ওঠে। এই সিবিআই ত’দ’ন্তের দাবিতে সম্মতি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

এই আ’বহে’র মধ্যে সুশান্ত দিশার একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রকাশ্যে এলো। জানা গিয়েছে এপ্রিল মাস পর্যন্ত তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান এর সাথে যোগাযোগ রেখেছিলেন সুশান্ত। এই ভাইরাল হওয়া চ্যাটের স্ক্রিনশটে দেখা যাচ্ছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগই কথাবার্তা হয়েছে কাজের বিষয়ে। পাবজি এবং এডিবল অয়েল বিষয়ক ব্র্যান্ডের ব্যবসা নিয়ে তাদের মধ্যে কথাবার্তা চলছিলো। চ্যাট থেকে সুশান্তের মৃ’ত্যুর তদন্তের নিরিখে ততটা গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণিত না হলেও এটা অবশ্য প্রমাণিত হয় যে রীতিমতো দিশার সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিলেন সুশান্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button