৭১ বছর বয়সেও সমুদ্রে ঝাঁ’পিয়ে দুই মহিলাকে বাঁচালেন স্বয়ং দেশের রাষ্ট্রপতি, ভাইরাল ভিডিও

জননেতা এমনই হওয়া উচিত যার রন্ধ্রে রন্ধ্রে দেশ প্রেমের আ-গু-ন জ্বলছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক অন্যতম দেশের রাষ্ট্রপতির এক মানবিক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখে ধন্য ধন্য করছেন কোটি-কোটি নেটিজেনরা। জানা গিয়েছে ওই দেশে সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে পর্যটনশিল্পকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা নিয়েছেন সেই দেশের রাষ্ট্রপতি। সেই নিরিখে তিনি সমুদ্র উপকূলবর্তী অঞ্চলে কাজকর্ম দেখছিলেন।

তখন ওই মুহূর্তে সমুদ্রে স্নান করছিলেন দুই মহিলা। তারপরে ওই দুই মহিলা একটি ছোট বোটে করে পাড়ি দেন সমুদ্রের দিকে। কিন্তু হঠাৎই হয় ছন্দ-প-ত-ন। ঢেউয়ের জোরালো ধাক্কায় আচমকা তাদের বোট উল্টে যায় এবং জলে হাবুডুবু খেতে থাকেন ওই দুই মহিলা।তৎক্ষণাৎ জলে হাবুডুবু খেতে দেখা ওই দুই মহিলা চিৎ-কার শুরু করেন। সঙ্গে সঙ্গে সেই অঞ্চলে উপস্থিত রাষ্ট্রপতি আর দেরি না করে গভীর সমুদ্রের ঝাঁ-প দেন।

তার কেটে প্রায়ই মহিলাদের কাছাকাছি পৌঁছে যান তিনি। দুই মহিলার এই বেগতিক অবস্থা দেখতে পেয়েছিলেন উপকূলে উপস্থিত থাকা একজন ব্যক্তি। তিনি সাথে সাথে একটি ভোট জোগাড় করে ওই বি-প-দগ্রস্ত মহিলা দুজনের কাছে পৌঁছে যান। তারপরে ওই ব্যক্তি ওই দুই মহিলাকে উদ্ধার করে সমুদ্রের পাড়ে নিয়ে আসেন।জানা গিয়েছে ওই দুই মহিলার পেটে প্রচুর পরিমাণে সমুদ্রের লবণ জল ঢুকে গিয়েছিল কিন্তু বর্তমানে তাঁরা বেস্ট সুস্থ রয়েছেন।

এই মানবিক ঘটনা ঘটেছে পর্তুগালে। পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবেলো। 71 বছর বয়সী পর্তুগালের এই প্রেসিডেন্ট নিজেই জলে ঝাঁ-প দিয়ে ডুবন্ত দুই মহিলাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেছেন। একজন দেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে তাঁর এই মানবিক কাজ সারা বিশ্বের মাঝে পর্তুগালকে অত্যন্ত গৌরব এবং সম্মানীয় আসনে আসীন করেছে। সকলেই পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলোর মানবিকতার জয়জয়কার করেছেন।

নিজের জীবনের পরোয়া না করে তিনি যেভাবে ওই দুই মহিলাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়েছেন রাতে যথারীতি তাকে একজন প্রকৃত রাষ্ট্রনায়ক আখ্যা দেওয়া যেতেই পারে। নেটিজেনরা ধন্য ধন্য করছেন পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবেলোকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button