এবার থেকে দৈনিক টিকিট কেটে যাতায়াত করতে পারবেন লোকাল ট্রেনে! জানিয়ে দিলো রেল মন্ত্রক! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- কিছুটা হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস পাওয়া গেল এই খবরের থেকে এবার সাধারণ নিত্যযাত্রীদের আর কোন অসুবিধা থাকবে না । সেই পয়লা জুলাই আংশিকভাবে শিথিল হয়েছিল কিছু বিধিনিষেধ । তারপরে আশা দেখানো হয়েছিল ১৫ জুলাই সম্পূর্ণ রকম ভাবে উঠে যাবে লকডাউন । কিন্তু সেই লকডাউন এর সময়সীমা বাড়ি দেওয়া হয়েছে ৩১ শে জুলাই অব্দি । একদমই ঠিক শুনেছেন কিন্তু সবকিছু নি-ষেধাজ্ঞা ধীরে ধীরে উঠতে শুরু করল এখন অব্দি গড়ায়নি ট্রেনের চাকা । যার ফলে বিক্ষোভের সম্মুখীন হচ্ছে প্রতিনিয়ত পূর্ব রেলের কর্মকর্তারা মন একাধিক জায়গায় সাধারণ নিত্যযাত্রী বিক্ষোভ করছেন তারা ।। কিন্তু কোন রকম ভাবে কোন কিছুই নজরে আসে না রাজ্য সরকার।

প্রথমবার লকডাউনের সময় আমরা দেখেছিলাম তড়িঘড়ি করে বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে লোকাল ট্রেন পরিষেবা । যাতে সংক্রমণ এড়ানো যায় । কিন্তু অপরদিকে রাজনৈতিক মিটিং-মিছিল দোকানপাট বাজার সবকিছুই খোলা থাকতো । সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন জাগতে শুরু করে তাহলে কি সংক্রমণ শুধুমাত্র লোকাল ট্রেনের মাধ্যমে ছড়ায় ? তার পাশাপাশি যখন দ্বিতীয় ল-কডা-উন হলো তখনও সেই একই রকম ভাবে বন্ধ করে দেয়া হলো লোকাল ট্রেন । লোকাল ট্রেন বন্ধ করে দেয়ার ফলে সাধারণ নিত্যযাত্রী তো অসুবিধা সাথে সাথে যাদের সংসার চলত লোকাল ট্রেনের উপর নির্ভর করে তাদের সংসার নেমে অন্ধকার । কবে থেকে চলবে পুনরায় লোকাল ট্রেন সে বিষয়ে কোনো রকম কোনো জ্ঞান নেই ।শুধু আসার পর আশা রয়েছে প্রতিনিয়ত।

আমরা দেখেছিলাম কিছুদিন আগে হাওড়া এবং শিয়ালদা ডিভিশনের বিভিন্ন স্টেশনে একাধিকবার সাধারণ নিত্যযাত্রী বিভিন্ন রকম ভাবে বিক্ষোভ করেছে, রেল অবরোধ করেছে । যার ফলে পূর্ব রেলওয়ের কর্মকর্তারা সমস্ত বিষয়টি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী কে চিঠি দিয়েছিলেন এবং বারবার অনুরোধ করেছেন যাতে লোকাল ট্রেন চালানো হয় । তারা সমস্ত রকম বিধি মেনে ট্রেন চালাতে প্রস্তুত আছে । কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অন্যান্য পরিবহন ব্যবস্থার উপর ছাড় দিলেও লোকাল ট্রেন চালাতে রাজি নয় । যার ফলে পুনরায় বি-ক্ষোভের আ-কার ধা-রণ করছে পরিবেশ । কবে থেকে চলবে লোকাল ট্রেন এখনো পর্যন্ত জানা যায় নি,

তবে ইতিমধ্যে স্টাফ স্পেশাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে । অপরদিকে এক বিশেষ তথ্য প্রযুক্তির সাহায্য নিয়েছে শিয়ালদা ডিভিশন রেল কর্তৃপক্ষ । এবার থেকে মাসিক টিকিট না কেটে দৈনিক টিকিট কাটতে পারে জরুরী পরিষেবা সাথে যুক্ত ব্যক্তিরা । টিকিট কাউন্টার বন্ধ অথচ অফিস খোলা রয়েছে । তাই বিনা টিকিটে যাত্রা করতে হচ্ছে তাদেরকে । কোন কারণে টিকিট চেকারের হাতেনাতে ধরা পড়ে গেলে মোটা অংকের টাকা ফাইন লাগছে ।এবার থেকে সেই ব্যবস্থা রেহাই মিলবে এর মাধ্যমে এমনটা জানাচ্ছে পূর্ব রেলের কর্মকর্তারা ।তবে এই ব্যবস্থা আপাতত শিয়ালদা ডিভিশন এর জন্য পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়েছে । আগামী দিনে সমস্ত ডিভিশনে এবং সমস্ত স্টেশনে পৌঁছে বলে অনুমান করা হচ্ছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button