ঠাকুর ঘরে ভুলেও কোনোদিন এই দেবতার মূর্তি রাখবেন না, রাখলে আর্থিক সমস্যা মিটবেনা কোনোদিনও!

আপনি যদি আপনার গৃহের সুখ শান্তি বজায় রাখতে চান তাহলে ঠাকুর ঘরে এই সকল দেব দেবীর মূর্তি কিংবা ছবি ভুল করেও কখনো রাখবেন না ।যদি রাখেন তাহলে সংসারে অশান্তি দুঃখ-দুর্দ-শা লেগেই থাকবে। হিন্দু সম্প্রদায়ে প্রত্যেকে ঈশ্বরের আরাধনা করেন। নিজ নিজ ইষ্টদেবতার মূর্তি বা ছবি রেখে নিত্য তার আরাধনা করে থাকেন।

কিন্তু আমরা অনেকে এ বিষয়ে অবগত ন‌ই যে এমন কিছু কিছু দেব – দেবী রয়েছেন যাদের মূর্তি বা ছবি গৃহে রাখা মঙ্গলজনক নয় বলে মনে করা হয়। কেননা এগুলো গৃহে রাখলে অমঙ্গলের ছায়া নেমে আসে।তাহলে চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক কোন কোন সেই দেব-দেবীর মূর্তি যেগুলি বাড়িতে রাখা হিতকর নয় বলে মনে করা হয়।

প্রথমত :- শ্মশানকালীর মূর্তি বা ছবি। আপনার গৃহে বা ঠাকুর ঘরে প্রাঙ্গণে কখন‌ই শ্মশান কালীর মূর্তি বা ছবি রাখবেন না । কারণ শ্মশানকালীর বাস শ্মশানে তাই আপনি যদি আপনার বাড়িতে শ্মশান কালীর মূর্তি বা ছবি রেখে থাকেন তাহলে আজ থেকে তা আর রাখবেন না ,কেননা এতে সংসারে অশান্তি বা অমঙ্গলের ছায়া নেমে আসতে পারে। ‌

দ্বিতীয়ত :- আপনা ইষ্টদেবতার কোন রুদ্রমূর্তি বা ছবি ভুল করেও কখনো ঠাকুর ঘরে রাখবেন না।যদি রাখেন তাহলে অশান্তির শেষ থাকবে না ‌।

তৃতীয়তঃ আমরা সিদ্ধিদাতা গণেশের মূর্তি পূজা অর্চনা করে থাকি, বিশেষ করে যারা ব্যবসার সাথে যুক্ত তারা গনেশের পূজা আর্চনা করে থাকেন। কিন্তু একসাথে তিনটি গণেশের মূর্তি কখনোই ঠাকুর ঘরে বা দোকানে রাখা উচিত নয়। যদি রাখেন তাহলে আপনি আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়বেন।

চতুর্থত:- গৃহে কখনো দুটো শিবলিঙ্গ একসাথে রাখবেন না। এমনটা করলে আপনি নিজের অজান্তেই নিজের বিপদ ডেকে নিয়ে আসবেন ।আপনার শত্রু সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে আপনি কখনো শান্তিতে থাকতে পারবেন না।

পঞ্চমত:- ধূমাবতী দেবীর মূর্তি বা ছবি। এই দেবীর ছবি গৃহে কিংবা ঠাকুর ঘরে রাখলে অশান্তি দেখা দিতে পারে তাই এই ছবি রাখা থেকে বিরত থাকবেন।

ষষ্ঠতঃ – লক্ষ্য রাখবেন আপনার গৃহে কোনো দেবতা কিংবা আপনার ইষ্টদেবতা যাদের আপনারা নিত্য পূজা অর্চনা করেন সেই দেব-দেবীর মূর্তি বা ছবি যদি কোনো কারণবশত ভেঙ্গে যায় তাহলে তা কখনোই ঠাকুর ঘরে কিংবা গৃহে রাখবেন না ।সেটিকে জলে বিসর্জন দিয়ে আসবেন। কেননা ভগবান এর ভাঙ্গা মূর্তি গৃহে নেগেটিভ এনার্জি ছড়িয়ে থাকে তাই কখনো সেটিকে রাখবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button