শহরে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে পুরুষত্ব, নারী নয়, এখানে বিক্রি হয় পুরুষের শরীর, তাও আবার ভালো দামে!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আমাদের দেশে এবং দেশের বাইরে বেশকিছু উচ্চমানের রেড লাইট এরিয়া থাকে যাকে বাংলা ভাষায় পতি’তা’লয় বলা হয়ে থাকে। এখানে সাধারণত মেয়েরা তাদের শরীরের বিক্রি করে টাকা উপার্জন করে । প্রাথমিক দৃষ্টিতে কেউ কেউ অ’ভা’বের কারণে এই রাস্তায় নামলে ও বর্তমান যুগে শুধুমাত্র যে অ’ভা’বের কারণে মেয়েরা এই পথে নামে তেমনটা নয় ।

কিছুটা চাহিদা বা লো’ভের কারণে এ রাস্তা বেছে নেয় অনেকে । তবে সেই তালিকায় শুধু যে মেয়েদের নাম এমনটা নয়। নাম জুড়েছে ছেলেরাও ।অবাক হলেন? কিন্তু এ রকমই এক ঘটনা সন্ধান পাওয়া গেছে ।এর পাশাপাশি উচ্চবিত্তদের জন্য এই ধরনের ব্যবসা কে বা এই ধরণের শারীরিক ব্যবসার সাথে জড়িত মেয়েদেরকে ক’ল গা’র্ল বলা হয়ে থাকে । মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে এরা প্রভাবশালী উচ্চবিত্ত কোন ব্যক্তির সাথে বিছানা ভা’গ করে নিতে পি’ছুপা হন না। তবে হোটেল বা যৌ’ন’পল্লীতে পুলিশের ন’জর থাকে তুঙ্গে তাই সেখানে এসব ব্যবসা রীতিমতো ভ’য়ে ভ’য়ে চলে ।

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও এই কাজে মা’হির হয়ে উঠেছে । এবং বিক্রি করে চলছে তাদের পু’রু’ষত্ব। মিলছে মোটা অংকের টাকা। সাধারণত যেসব মহিলারা বিবাহিত জীবন পর সুখ পান না বা স্বামী সুখ দিতে পারেনা সে সব মহিলারা এই ধরনের নিয়ম কে বেছে নেন । সম্প্রতি এমনই দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রতিটি গ’লিতে ।

এগুলিকে এককথায় এসকোর্ট বিজনেস বলা হয়।সমাজ বিজ্ঞানীরা বলছেন, এসকর্ট বিজনেসের এই রমর’মা ব্যা’বসায় মে’য়েরা আগে পেটের দায়ে আসলেও, এখন আসে স্রেফ উচ্চাভিলাষী জীবনযাপনের জন্য। বাংলাদেশের ঢাকা শহরের উত্তরায় এরকম কিছু ফ্ল্যাটের সন্ধান পাওয়া গেছে যেখানে “স্বামী স্ত্রী” উভয়েই এসকর্ট বিজনেসের সাথে জড়িত।

এস’কর্ট বিজনেসের সঙ্গে জড়িত এক বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণী জানায়, একজন স্ত্রী তার স্বামীর কথায় আরেকজন পুরুষের সাথে বিছানা শেয়ার করতে সানন্দে রাজি হয়ে যাচ্ছে।বিনিময়ে শরীর বি’ক্রি করে স্মার্ট ফোন, ল্যাপটপও আদায় করে নিচ্ছে অনেকে। এ পেশায় আধুনিক ছেলেরাও যোগ দিয়েছে।

এসকর্ট বিজনেসের সঙ্গে জড়িত এক বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণী জানায়, একজন স্ত্রী তার স্বামীর কথায় আরেকজন পুরুষের সাথে বিছানা শেয়ার করতে সানন্দে রাজি হয়ে যাচ্ছে। যেহেতু এগুলি নিজের বাড়িতে করা হয় তাই বাকি সমস্ত জায়গা থেকে এটি তুলনামূলকভাবে শ্রেয় । এবং সেই পদ্ধতিকে কাজে লাগিয়ে রমরমিয়ে বাংলাদেশের চলছে বিজনেস ।

20 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button