ভারতে কি ফিরছে পাবজি? পাবজি প্রেমীদের জন্য আসল বড় সুখবর

গত ২ রা সেপ্টেম্বর, ১১৮টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছিল ভারত সরকার উপলক্ষ ডিজিটাল স্ট্রাইক, তার মধ্যে অন্যতম ছিল pubg যা আপামর ভারতকে নাড়িয়ে দিয়েছিল। গুগল প্লে স্টোর ও অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল PUBG Mobile ও PUBG Mobile Lite। কিন্তু PC বা কনসোল থেকে খেলা যাচ্ছে PUBG। ভারত সরকার কেবল ব্যান করেছিল টেনসেন্টের মালিকানাধীন গেমটির মোবাইল ভার্সনগুলিকে।

তারপরই PUBG Corporation একটি অফিসিয়াল স্টেটমেন্ট জারি করেছে। সেই অনুযায়ী তারা ভারতের পাবজি মোবাইলের সমস্ত দায়িত্ব Tencent Games থেকে তুলে নিচ্ছে। এবার থেকে ভারতে পাবজি মোবাইলের সমস্ত দায়িত্বে থাকবে দক্ষিণ কোরিয়ার পাবজি কর্পোরেশনের। এই সিদ্ধান্তের পর তারা আশাবাদী ভারত সরকার পাবজি পিসি-র মত পাবজি মোবাইল থেকেও ব্যান তুলে নেবে।

PUBG Corp তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, ‘পাবজি কর্পোরেশন ভারতের সমস্ত পাবলিশিং রেসপনসিবিলিটি টেনসেন্ট গেমস থেকে অধিগ্রহণ করবে’। তারা আরো বলেছে, ‘সংস্থাটি অদূর ভবিষ্যতে ভারতের জন্য নিজস্ব পাবজি অভিজ্ঞতা সরবরাহ করার উপায়গুলি আবিষ্কার করার চেষ্টায় আছে। পাবজি তাদের অনুরাগীদের জন্য স্থানীয় এবং স্বাস্থ্যকর গেমপ্লে পরিবেশ বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ’।

উল্লেখ্য, গেম উজাররা এখনো পর্যন্ত অ্যাপ ব্যান সংক্রান্ত কোনও নোটিফিকেশন পান নি। তবে কিছু দিনের মধ্যেই PUBG Mobile এবং PUBG Mobile Lite এর সার্ভার অ্যাক্সেস ব্লক হয়ে যাবে তা নিশ্চিত ভাবে বলা যায়। তবে এখনও যা স্পষ্ট নয় তা হল আগামীতে Express VPN বা Nord VPN ব্যবহার করে এদের ব্যবহার করা যাবে কিনা!

‘ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা, ভারতের প্রতিরক্ষা, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা এবং গণ-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য হানিকর’।
তাই এই ১১৮টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়, অন্তত সরকারের তরফে তাই জানানো হয়। আরো একটি বিবৃতিতে বলা হয় যে, “এই মোবাইল গেমটিকে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৯এ ধারায় নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্তটি ভারতীয় সাইবারস্পেসের সুরক্ষা, এবং সার্বভৌমত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটি পদক্ষেপ।”
ভারত-চিনের সম্পর্কে নতুন উত্তেজনা বাড়ার পরই এই সিদ্ধান্ত ভারত সরকারের। প্রায় ৩ কোটি ৩০ লক্ষ PUBG ব্যবহারকারী ছিল ভারতে।

জুন মাসে টিকটক, UC Browser, CamScanner-সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপ; জুলাই মাসে আরো ৪৭টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে সরকার। বিভিন্ন সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী, পূর্ববর্তী নিষিদ্ধ হওয়া ৫৯টি অ্যাপের ক্লোন হিসাবে কাজ করছিল পরবর্তী ৪৭টি অ্যাপ। তাই চিনা অ্যাপের সুরক্ষা ও গোপনীয়তা যাচাই করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button