“যেকোনো সময় যেকোনো মুহূর্তে ভারত এয়ার স্ট্রাইকের জন্য রাজি, কিন্তু চীন আগ্রাসন দেখায়নি “- বায়ুসেনা প্রধান

নিজস্ব সংবাদদাতা: এয়ার স্ট্রাইকের পাল্টা জবাব দেওয়ার জন্য তৈরি ভারতীয় বায়ুসেনা। চিনের কোনরকম ভুল পদক্ষেপ দেখলেই এয়ার স্ট্রাইক চালানো হবে। তবে চিনের তরফ থেকে আক্রমনাত্মক স্টেপ নেওয়া হয় নি এখনও অবধি। তবে সীমান্ত বরাবর কড়া নজরদারি চলছে। সোমবার এই বিষয়ে জানালেন ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধান আর কে এস বাদোরিয়া। তিনি বলেন,”ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ারস্ট্রাইকের যে ক্ষমতা রয়েছে, তা তুলনাহীন।”

বহু বিতর্কের পর বায়ুসেনায় এসেছে রাফায়েল। রাফায়েল নিখুঁত ও গতিশীল এয়ারস্ট্রাইক করতে সক্ষম বলে জানান বায়ুসেনা প্রধান। তিনি বলেন,”আগামী পাঁচ বছরে বায়ুসেনায় যুক্ত হবে ৮৩টি এলসিএ তেজস মার্ক ১এ, এইচটিটি-৪০ ট্রেনার এয়ারক্রাফট।”

এদিন বাদোরিয়া দৃঢ় সুরে জানান, “ভারত চিন সীমান্ত সংঘাতের সময় এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি, যেখানে এয়ারস্ট্রাইক চালাবে বায়ুসেনা। তবে বায়ুসেনা তৈরি যে কোনও সময় এয়ার স্টাইকের জন্য।”

তিনি আরো জানান, “সীমান্তে চিনের আগ্রাসী মনোভাব ও দখলদারির স্বভাব ভারত সুনিপুণ দক্ষতায় রুখে দিয়েছে। ভারতীয় সেনা ও বায়ুসেনার কড়া নজরদারিতে এগোতে সাহস পায়নি চিন।”

বায়ুসেনার কাছে আসতে চলেছে সম্পূর্ণ দেশীয়ভাবে তৈরি ফিফথ জেন ফাইটার জেটের ইঞ্জিন। ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা সংস্থা ডিআরডিও এই ইঞ্জিন প্রস্তুত করার কাজ অনেক আগেই শুরু করে দিয়েছে।
এটি তৈরি করা হচ্ছে ফিফথ জেনারেশন অ্যাডভান্সড মিডিয়াম কমব্যাট এয়ারক্রাফটের জন্য। ইকোনমিক টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী ডিআরডিও-র এই ইঞ্জিন তৈরির পরিকল্পনা ভীষণ কার্যকর। রাফায়েল জেটের ইঞ্জিন হিসেবে এই নতুন ধরনের ইঞ্জিন কাজ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button