ভগবান জগন্নাথ দেবের আরাধনা করলে সহজে মেটে মনের বাসনা, গৃহে এসে সুখ শান্তি!

হিন্দুদের অন্যতম জাগ্রত ভগবান হলেন শ্রী জগন্নাথ দেব। তোমার সাথে বিরাজ করেন বলভদ্র এবং সুভদ্রা। ভগবান জগন্নাথ হলেন বিষ্ণুর অবতার। উড়িষ্যার পুরী তে রয়েছে জগন্নাথ দেবের সুপ্রাচীন এবং সুপ্রসিদ্ধ মন্দির। আশ্চর্য এবং আকর্ষণীয় গঠনশৈলীতে ভরপুর এই মন্দিরে দেশ-বিদেশ থেকে বহু ভক্ত প্রভুর দর্শন পেতে আসেন। পুরীর সমুদ্র সৈকত ছাড়াও পুরীর অন্যতম আকর্ষণ হলো প্রভু জগন্নাথ দেবের মন্দির।

বিশেষ করে রথযাত্রার দিন জগন্নাথ দেব, বলভদ্র এবং সুভদ্রার রথযাত্রার কে কেন্দ্র করে বিপুল ভক্ত সমাগম হয় পুরীর মন্দির চত্বরে। প্রভু জগন্নাথ দেবের আশীর্বাদে জীবন থেকে অন্ধকার দূর হয়ে জীবন হয়ে ওঠে আলোকে উদ্ভাসিত। ভক্তদের সমস্ত সমস্যার নিরসন ঘটান প্রভু জগন্নাথ দেব। প্রভু জগন্নাথ দেবের আশীর্বাদে কখনো কেউ অভুক্ত থাকতে পারবে না। পুরীর মন্দিরে যে প্রসাদ হয় তা আজ পর্যন্ত কোনদিনও কম পড়েনি।

মানুষের মনে শান্তির সঞ্চার ঘটান প্রভু। হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী পবিত্র রথযাত্রার দিন জগন্নাথ দেবের দর্শন করলে এবং তাঁর রথের দড়িতে টান দিলে জীবন পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে সুখ ,শান্তি এবং সমৃদ্ধিতে। ভক্তি ভরে প্রভু জগন্নাথ দেবের পূজা করলে জীবন থেকে সমস্ত বাধা বি-প-ত্তি দূর হয়। প্রভুর আশীর্বাদে জীবন হয়ে ওঠে ধন্য। ভক্তদের সমস্ত মনোবাঞ্ছা পূর্ণ করেন প্রভু জগন্নাথ দেব। পুরীর মন্দিরে প্রভু জগন্নাথ দেব, বলভদ্র, এবং মা সুভদ্রার অতি ভক্তি সহকারে নিয়মিত পূজা দেওয়া হয়। মন্দিরে লক্ষ লক্ষ ভক্তের সমাগম হয় প্রতিনিয়ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button