“আমার করোনা হলে সবার আগে মমতা ব্যানার্জীকে জড়িয়ে ধরবো “- বি’স্ফো’রক উক্তি বিজেপি কেন্দ্রীয় সম্পাদক অনুপম হাজরার!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সামনে একুশে ভোটকে মাথায় রেখে রাজনৈতিক মহল গু-লি প্রস্তুতি ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে তার সাথে শুধু শুরু হয়েছে প্রশ্ন যু-দ্ধ ক-টাক্ষ যু-দ্ধ। একের পর এক চলছে জবাবের পর পাল্টা জবাব। কোথাও আবার মানুষের পাশে থাকা থাকার প্রতিশ্রুতি , কোথাও আবার মন্তব্য করতে বেকায়দায় পড়ে যাওয়া । সম্প্রতি একটি ঘটনা ঘটেছে যা বিতর্কে ফেলেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক অনুপম হাজরা কে । বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি কে নিয়ে কু-রু-চি-কর মন্তব্যের অ-ভি-যোগ ওঠে তার বি-রু-দ্ধে ।

গতকাল দক্ষিণ ২৪ পরগনা বারুইপুর এলাকায় একটি সভাতে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপি কেন্দ্রীয় সম্পাদক অনুপম হাজরা। ওই সভা থেকে তিনি এমন এক মন্তব্য করে বসলেন যাকে ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক । এর পাশাপাশি ওই সভাতে বাইক মিছিল করে সামাজিক নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগ ওঠে সম্পাদকের বি-রু-দ্ধে । তবে তার এই মন্তব্য এক আলাদা মাত্রায় নিয়ে গিয়েছে এই বি-ত-র্ক-কে। কি বলছে এ বিষয়ে? আসুন জেনে নেওয়া যাক ।

সম্প্রতি এই সভা থেকে অনুপম হাজরা বলেন যে করোনার পরিস্থিতি মাথায় না রেখেই তৃণমূল সরকার বিভিন্ন কাজ করে চলেছে কিন্তু বিজেপি করলেই তার মধ্যে দোষ খুঁজে পাচ্ছেন তিনি কাজে কোনো কারণে যদি আমার কোরোনা হয় তাহলে সবার আগে জড়িয়ে ধরব আমি মমতা ব্যানার্জিকে”। ব্যাস এই বক্তব্য সামনে আসতে শুরু হয় বিতর্কের ঝড় । রীতিমতো ক্ষো-ভ ফাটছে তৃণমূল সরকার কর্মীরা। তবে এই বিষয়ে দ্রুত তৎপর হয়েছেন দার্জিলিং জেলার তৃণমূল কংগ্রেস । কি ব্যবস্থা নিয়েছেন তারা? ।

মুখ্যমন্ত্রী কে নিয়ে কু-রু-চি-কর মন্তব্যের জন্য অনুপম হাজরা কে দ্রুত গ্রে-ফ-তা-র করা হোক এমনটাই দাবি দার্জিলিং জেলার উদ্বাস্তু সেলের । ঐদিন তারা সিলিগুলি থানায় সামনে বি-ক্ষো-ভ দেখায় অনুপম হাজরা কে গ্রেফতার করার দাবিতে। এর পাশাপাশি দার্জিলিং জেলা উদ্বাস্তু সেলের সভাপতি মুকুল বৈরাগ্য বলেন ” একটা গুরুত্বপূর্ন পদে দায়িত্ব থাকলে রীতিমতো ভেবেচিন্তে কথা বলা উচিত” । তবে এখনো পর্যন্ত তিনি গ্রে-ফ-তা-র হয়েছেন কিনা এ বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button