আব-র্জনার স্তূপ থেকে কুড়িয়ে পাওয়া মেয়েটি তার সবজি বিক্রেতা বাবার এতো বড় প্রতিদান দিলো

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে চলার পথে কখনো উপরে উঠি কখনো আবার নিচে নেমে যায় । ওঠাপড়ার মধ্য দিয়েই আমাদের জীবন অতিবাহিত হয় । এরই মাঝে আমাদের সমাজে এমন বেশ কিছু ঘটনা আমরা দেখে থাকি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যা আমাদের এই জঞ্জাল যুক্ত সমাজে ফের একবার বাঁচিয়ে তুলতে বিশ্বাস জাগিয়ে তোলে । এই ঘটনা তার প্রমান।

আসামের এক সবজি বিক্রেতা নাম নিখিল । প্রতিদিন কোনরকম ভাবে সবজি বিক্রি করে তার সংসার চলে । জোট এ দুমুঠো ভাত । কিন্তু সেদিনের ঘটনার ছিল একটু আলাদা । তিনি সবজি বিক্রি করতে রাস্তায় যান এবং হঠাৎই আব-র্জনার স্তু-প থেকে একটি শব্দ তিনি শুনতে পান । অনেকক্ষণ ধরে ধরে শব্দ শুনতে পাওয়ার পর তার মনে কৌতুহল হয়।

কৌতূহলে বসে তিনি আব-র্জনার স্তূপে যান এবং গিয়ে যেটি দেখেন তা রীতিমতো অবাক করে তুলেছিল । একটি বাচ্চা মেয়ে সেখানে কাঁ-দছে এবং পড়ে রয়েছে ।অর্থাৎ জন্ম নেবার পর মা-বাবা সেই বাচ্চা নিতে অস্বীকার করেছে । যার ফলে আবর্জনার স্তূ-পে তার জায়গা হয়েছে । কিন্তু নিখিল ছিল সহৃদয় ব্যক্তি । তাই তাকে তুলে নিয়ে তিনি বাড়িতে যান।

নিখিল যেহেতু অবিবাহিত ছিল তাই সে বাচ্চা বাড়িতে রাখলে তার কোন অসুবিধা হয়নি । নাম রেখেছিল আদরের মিথিলা । অবশেষে অনেক রকম জীবনে ওঠাপড়া মধ্য দিয়ে তিনি তার মিথিলাকে বড় করেন । এবং ক-ষ্টের মধ্য দিয়ে তাদের জী-বন যায় ।

কিন্তু সেই মিথিলা যোগ্য উপহার দিয়েছে তার বাবাকে । এই মুহূর্তে তিনি আইপিএস অফিসার । এটাকে হয়তো ঘুরে দাঁড়ানো বলে এটাকে হয়তো বলে সমাজের প্রতি প্রতি-শোধ নেওয়া ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button