দার্জিলিং এর রাস্তায় ‘আওগে জব তুম ও সাজনা’ গানের তালে দুর্দান্ত নাচ মনামির, মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-অনেকদিন থাকা হয়ে গেছে ঘরের মধ্যে। এবার মন যেন চায় সে একটু বাইরে থেকে ঘুরে আসি। কিন্তু বাইরে যে পরিবেশ একদম সঠিক নয় । এই মুহূর্তে চারিদিকে হু হু করে বাড়ছে সং-ক্র-মণ বাড়ছে মৃ-তে-র সংখ্যা । রীতিমতো ভ-য়ে কোণঠাসা সকলে। কিন্তু সামনে বাঙালির শ্রেষ্ঠ পুজো, দুর্গাপূজো । বাঙালি আটকে থাকার পাত্র নয় ।

বাজেট একটু বেশি হলে বিদেশ কিংবা কম হলে দেশের মধ্যে, খুব কম হলে রাজ্যের মধ্যে ঘুরে আসা যেতেই পারে। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে বাইরে বের হচ্ছে এরকম মানুষ সংখ্যা হাতেগোনা কয়েকজন , তবে যে বের হচ্ছেন না এমনটা নয়। সেরকমই এক অভিনেত্রী যার কথা না বললে কথাটা সম্পূর্ণ হবেনা । তার নাম মনামী ঘোষ। অভিনেত্রী মনামী ঘোষের কথা আমরা বলছি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ ভালোরকম হবে সক্রিয় থাকা অভিনেত্রী মনামি ঘোষ এর আগেও বিভিন্ন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম ছবি বা ভিডিও পোস্ট করে উষ্ণতার পা-র-দ জড়িয়েছে অনুগামীদের মধ্যে । কখনো বড়লোকের বিটি লো গানটি যেটি কিনা নতুন মোড়কে বাজার এনেছিল বাদশা গেন্দা ফুল নামে সেই গানের সাথে নাচের ভিডিও করে, কখনো বা অন্য কোন গানের নাচের ভিডিও করে রীতিমতো একের পর এক কাঁপিছে নেট দুনিয়া । মনামী ঘোষ একজন সুদক্ষ অভিনেত্রীর পাশাপাশি একজন ভালো নিত্য শিল্পী ও বটে। তার প্রমাণ তার ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক প্রোফাইলে গেলেই বোঝা যাবে ।

কি করছে এই মুহূর্তে মনামী ঘোষ? জানেন ? রীতিমতো দার্জিলিংয়ের অলিগলিতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বাঙালি অভিনেত্রী। কখনো কাঞ্চনজঙ্ঘা মনোরম পরিবেশ কখনো বা পাহাড়ের ঢাল রীতিমতো নিজের গতিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে বাঙালির এই অভিনেত্রী জীবনের কোন ভয় না রেখে ।

দার্জিলিঙে থাকা বাঙালি অভিনেত্রী একটি ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয় যেখানে দেখা যায় হলুদ রঙের সোয়েটার , জিন্স ও চোখে সানগ্লাস নিয়ে মনামি ঘোষ” জব উই মিট” সিনেমার ” আওগে জাব তুম সাজনা ” হিন্দি গানের সঙ্গে একটি স্লোমোশন এ ভিডিও করেছেন। তবে ভিডিওটি বেশী সময় নেয়নি নিমিষের মধ্যে বেড়েছে এর ভিউস সংখ্যা ।

মনামী ঘোষ। বাংলা টেলিভিশন জগতের পরিচিত মুখ। তাঁকে সব সময় পজেটিভ চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়। তবে শুধু অভিনয় নয়, মনামী একজন খুব ভাল নৃত্যশিল্পীও। সেই সঙ্গে ঘুরতে  যেতেও তিনি খুব পছন্দ করেন। আর তাই জন্যই করোনা ভয় কাটিয়ে ঘুরে ফেললেন দার্জিলং। তাঁর চোখ দিয়ে তুলে ধরলেন এই শহরের আর এক রূপ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button