স্বল্প পোশাকে দারুন কায়দায় কোমরের অপূর্ব ভঙ্গিমায় দুর্দান্ত নাচ যুবতীর, মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও!

বর্তমান যুগে আমরা প্রত্যেকেই স্মার্টফোনের ব্যবহার সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। ছয় থেকে ষাট প্রত্যেকের হাতেইস্মার্টফোন বিরাজমান।এই স্মার্টফোন এর সাহায্যে গোটা বিশ্ব দুনিয়া এক ক্লিকেই মুঠোবন্দী অর্থাৎ স্মার্টফোন কে আমরা মুঠোফোনে বলে থাকি।

নোট বন্দির পরবর্তীকালে একটি নতুন টেলিকম সংস্থা জিও সিইও হলেন মুকেশ আম্বানি ।এই সংস্থাটিবাজারে পা দেওয়ার সাথে সাথে নেট এর দাম অনেকটাই কমে গিয়েছে যার ফলে সাধারণ মানুষেরা অতি সহজেই ইন্টারনেট ব্যবহার করতে সক্ষম হয়েছেন।ইন্টারনেট দৈনন্দিন জীবনে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে অফিসের কাজকর্ম থেকে শুরু করে পড়াশোনা থেকে শুরু করে এছাড়া অন্যান্য কাজে ইন্টারনেট এর অবদান অনেক।

এই লকডাউন এর পরবর্তীকালে কিংবা লকডাউন এরমধ্যে মানুষ তার অবসর সময়টা কিছুটা উপভোগের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচুর পরিমাণে পোস্ট কিংবা একটিভ থাকতে দেখা গিয়েছে। এই সোশ্যাল মিডিয়াতে এমন কিছু ভিডিও পোস্ট হয় যেগুলো মানুষের মনকে আনন্দ দেয় আবার কখনো কখনো কিছু কিছু ভিডিও ভাইরাল হয়ে ওঠে আবার তা অনেক সময় মানুষের মন কে কষ্ট দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় যে ধরনের ভিডিও গুলো ভাইরাল হয় সেগুলো কে তার ধর্ম অনুসারে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা হয়। এক ধরনের ভিডিও যেগুলো তে নাচ গান ইত্যাদি প্রকাশ করা হয়ে থাকে।সেলিব্রিটি বিভিন্ন গায়ক নানাবিধ ভিডিওকে বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ার সংস্থা টিকটক ইউটিউব টুইটার ইনস্টাগ্রাম ফেসবুক প্রভৃতি জায়গায় প্রকাশ করে অনেক সময় ট্রোলড হয়েছেন আবার অনেক সময় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে অর্থাৎ নিমেষেই কয়েক লক্ষ দর্শক দেখে ফেলেছেন এই ভিডিও।

আরেক ধরনের ভিডিও যেগুলো স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রকাশ করা হয় অর্থাৎ এই ভিডিও গুলোর মাধ্যমে সমাজের ব্যবস্থা মানবিক কাজকর্ম প্রকাশ করা হয়ে থাকে।যেমন কোন অসহায় মানুষকে সাহায্য দান কিংবা কোনো পথ চলতি কুকুরদের খাদ্য দান করা এছাড়াও অনেক ভিডিও ভাইরাল হয়ে থাকে।এই ধরনের ভিডিও গুলো মূলত প্রকাশ করা হয় মানুষকে আনন্দ প্রদান করার জন্য অনেক সময় বিভিন্ন বয়সের ছেলেমেয়েরা নানা রকমের হাস্যকর বিষয়বস্তুকে নিয়ে ভিডিও প্রকাশ করে থাকে।

ছাড়াও অনেক সময় অমানবিক নিষ্ঠুরতা পশু নির্যাতন মানুষ নির্যাতন অনেক ধরনের নির্যাতন অর্থাৎ নিষ্ঠুরতার কিছু ভিডিও অনেক সময় ভাইরাল করা হয় সোশ্যাল সাইটে। সকল ভিডিওগুলি নিয়ে বুদ্ধিজীবীরা কিংবা নেটিজেন এরা মূলত সরব হয়ে থাকেন তাদের শাস্তির জন্য। ভিডিওগুলি দেখলে মানুষের মন যেমন ভারাক্রান্ত হয়ে ওঠে তেমনি মানুষ গর্জে ওঠে প্রতিবাদী মন্ত্রে।দোষীরা অনেক ক্ষেত্রেই সাজা পান কিংবা অনেক ক্ষেত্রে আইনি আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বেঁচে যান কোনো না কোনো ফাঁকফোকর দিয়ে।

আবার অনেক সময় অনেক প্রতিভা কিংবা কিছু মানুষের স্বীকৃতি ভাইরাল হয় কোন সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত ভিডিওর মাধ্যমে।সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল সাইটে যেখানে দেখা যায়” জিনে মেরা দিল লুটিয়া” গানটি নিমেষেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে দর্শকদের কাছে।

এই গানটিতে একজন তরুনী একটি অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সমন্বিত জায়গায় নৃত্য পরিবেশনের মাধ্যমে দর্শকদের মনকে আন্দোলিত করার চেষ্টা করেছেন এই ভিডিওর মাধ্যমে আমরা পেয়েছি তরুণটি প্রাঞ্জলতা একটি খুশির আভাস কয়েক মিনিটের মধ্যেই প্রায় 87 হাজারের কাছাকাছি ভিউ এসেছে ভিডিওটিতে।বলা যেতে পারে সোশ্যাল মিডিয়া যেমন একদিকে আমাদেরকে অনেকটা উজড বিকে কিংবা ধাপে ধাপে উন্নতির পথে নিয়ে যাচ্ছে কিমনি আমাদেরকে অতি নিমেষেই ছোট করে দিতে কিন্তু পিছপা হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button