SBI এর 40 কোটি গ্রাহকদের জন্য বড় সুখবর, চারটি বড় নিয়মে বৃহৎ বদল আনলো স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া

দেশের অন্যতম প্রধান রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এইবছর চলতি মাসে একাধিক নিয়ম বদল করেছে ৷ নিয়মের বদল ঘটেছে ফিক্সড ডিপোজিট থেকে এটিএম থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রেও ৷ বদল হওয়া নিয়মের সরাসরি প্রভাব পড়তে চলেছে গ্রাহকদের উপর ৷সকল স্টেট ব্যাঙ্কের উপভোক্তাদের এই পরিবর্তিত নিয়মগুলি জেনে রাখা অত্যন্ত জরুরি ৷ দেখে নিন ঠিক কী কী নিয়মের বদল করেছে এসবিআই ৷

গ্ৰাহকদের এটিএম প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য এটিএম থেকে টাকা তোলার নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়েছে ৷ চলতি মাস থেকে 24×7 ওটিপি বেসড এটিএম উইথড্রয়েলের সুবিধা পাবেন স্টেট ব্যাঙ্কের গ্ৰহকরা ৷ দেশের সমস্ত এসবিআই এর এটিএমে ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে এই নতুন নিয়ম লাগু হয়েছে ৷ এর আগেএটিএম থেকে রাত ৮ টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত এই ১০ হাজার টাকার বেশি তুললে কেবল ওটিপি-র দরকার লাগত ৷

এই নিয়মটি পয়লা জানুয়ারি ২০২০ থেকে শুরু করা হয়েছিল ৷স্টেট ব্যাঙ্ক গ্রাহকদের লোন রিস্ট্রাকচারের সুবিধা দেওয়ার জন্য শীঘ্রই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সুবিধা আনতে চলেছে যার সাহায্যে ঠিক করা হবে কোন গ্রাহকদের কত দিনের জন্য মোরাটোরিয়াম (SBI Loan Moratorium) মিলবে ৷ মনে করা হচ্ছে চলতি মাসের শেষের সপ্তাহে এই প্ল্যাটফর্ম সুবিধা পাবেন সকল গ্ৰহকরা ৷ অনুমানিক ২৪ সেপ্টেম্বর এই প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রম শুরু হতে পারে ৷

অন্যদিকে এইমাসে আরো একবার এফডি-র সুদের হারের পতন ঘটাল স্টেট ব্যাঙ্ক ৷ ২ কোটি টাকার কম রাশির ক্ষেত্রে সুদের হার ০.২০ শতাংশ কমানো হলো ১-২ বছরের রিটেল ডোমেস্টিক টার্ম ডিপোজিটে ৷১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ থেকে নতুন সুদের হার লাগু করা হয়েছে ৷ চলতি বছরে এর আগে ২৭ মে সুদের হার কমিয়েছিল স্টেট ব্যাঙ্ক ৷

বর্তমান পরিস্থিতির জন্য এসবিআই এর প্রবীণ নাগরিকদের জন্য স্পেশ্যাল ফিক্সড ডিপোজিট স্কিম (Special Fixed Deposit Scheme) ইনভেস্ট করার জন্য অন্তিম তারিখ বাড়ানো হয়েছে ৷ মে মাসে প্রবীণ নাগরিকদের জন্য এসবিআই উইকেয়ার সিনিয়ার সিটিজেন টার্ম ডিপোজিট স্কিমের (SBI WECARE Senior Citizens Term Deposit scheme) ঘোষণা করেছিল ৷ বর্তমানে সুদের হার নিম্নমূখী গতি অব্যাহত ৷ এই পরিস্থিতিতে প্রবীণ নাগরিকদের কিছুটা বেশি সুদের হার দেওয়ার জন্য এই নতুন যোজনাটি লঞ্চ নিয়ে আসা হয় ৷ বলা হয়েছিল ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই স্কিমে অবেদন করার শেষ দিন ৷ তবে বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই সময়সীমা বাড়ানো ইয় ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button