“পরপর পাঁচ কন্যাসন্তান, আমার পুত্রসন্তান চাই” এবার ছেলে হয়েছে কিনা দেখতে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর পেট কাটলো স্বামী!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-কন্যা সন্তান এর জন্ম দেওয়া যেন পাপ । এরম কথা অনেকের মুখে শোনা যায় । দেশে যখন শ্লীলতাহানি, রেপ, বধূ নির্যাতন এর মত ঘটনা বেড়েই চলেছে তখণ সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে হয়তো কিছুটা সত্যি এ কথা । অনেকের আবার মেয়েদের উচ্চশিক্ষা র বি-রো-ধী । বক্তব্য “সেই তো রান্না ঘরে হবে ঠাঁই এত পড়ে কি করবে ?” । কিন্তু বর্তমান প্রজন্ম বলছে অন্য কথা । পুরুষের পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে নারীশক্তি ।

আজ অফিসের চাকরি থেকে পাইলট, সেনা থেকে নৌবাহিনী যুদ্ধ বিমান সব ক্ষেত্রে পুরুষের সাথে সমান ভাবে এগিয়ে আছে নারিশক্তি। কোন মা চাই না যে তার একটা ফুটফুটে মিষ্টি দেখতে কন্যা সন্তান হোক । যাকে সে গড়ে তুলবে নিজের ধাঁচে । কিন্তু এ সমাজ তা আর হতে দেয় না অনেক ক্ষেত্রে । রেখে দেয় সামনে বাঁধা । মাঝে মাঝে দেখা যায় বৈষম্য । ধরা পরে গোঁড়ামি । এমনি এক ঘটনার সাক্ষী রইলো উত্তরপ্রদেশ । কি সেই ঘটনা? চলুন তাহলে বলা যায় ।

এক পরিবারের মা পরপর পাঁচ বার কন্যা সন্তানের জন্ম দেয় । আর তাতেই ঘটে বিপ-ত্তি । পরের সন্তান কি লি-ঙ্গে-র সেটা জানতেই বাবা ঘটিয়ে ফেলে এই কর্ম কান্ড । পরের সন্তানের কন্যা বা পুত্র কি তা জানার জন্য অন্তঃস্বতা স্ত্রীর পেট কাটলো তার স্বামী । এরম ভ-য়া-ব-হ ঘটনাটি ঘটে উত্তরপ্রদেশের বরেলির তে ।

পুলিশ সূত্রে খবর বছর ৩৫ এর স্বামী পান্নালাল বার বার চাইতেন পুত্র সন্তান । কিন্তু তার স্ত্রী পর পর পাঁচ বার কন্যা সন্তান এর জন্ম দেওয়াতে আর নিজেকে ঠিক রাখতে পারে নি সে । পরের বার অন্তঃস্বত্তার খবর পেলেই অপেক্ষা করেনি আর । নিজে স্ত্রী পেট কেটে জানতে চেয়েছিল গর্ভের ভ্রূ-ণ কি লি-ঙ্গে-র।

ওই মহিলার আর্ত চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাঁকে উদ্ধার করেন। আপাতত আ-শ-ঙ্কজ-নক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। ৭ মাসের অ-ন্তঃ-স্ব-ত্ত্বা ছিলেন ওই নির্যাতিত মহিলা। প্রতিবেশীরা আরও জানায়, ওই মহিলার ওপর এর আগেও অত্যাচার করত পান্নালাল। আপাতত পুলিশ গ্রে-প্তা-র করেছে তাঁকে । চলবে মামলা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button