ধোনির অবসর নিয়ে মুখ খুললেন স্ত্রী সাক্ষী, আবেগঘন পোস্ট ধোনির স্ত্রীর!

মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতীয় ক্রিকেট জগতের ইতিহাসে এক অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান। তাঁর ব্যাটিংয়ে জাদুতে মুগ্ধ নন এমন ভারতীয়ের দেখা মেলা দু-ষ্ক-র। সম্প্রতি আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে তাকে খেলতে দেখার কথা ছিলো। এই ব্যাটসম্যানের অগুনতি অনুরাগী ছড়িয়ে রয়েছে দেশের বাইরেও। কিন্তু এবার আর দেশের জার্সি গায়ে খেলতে দেখা যাবে না ধোনিকে। স্বাধীনতা দিবসের দিনে অবসরের ঘোষণা করলেন ধোনি।

তিনি চেয়েছিলেন তাঁর অবসর ঘোষণার দিনটি স্মরণীয় হয়ে থাকুক তাই তিনি অবসর ঘোষণা করলেন ৭:২৯ মিনিটে। তিনি তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরি তে লিখেছেন, “এবার থেকে আমাকে ৭:২৯ মিনিটে অবসরপ্রাপ্ত হিসেবে আপনারা বিবেচনা করবেন।“ঠিক ওই সময়েই কেন অবসর গ্রহণ করলেন ধোনি তা নিয়ে শুরু হয়েছে বিস্তর জল্পনা। অনেকেই বলেছেন গতবছর ঠিক এই সময়টাতেই বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ভারতীয় দল পরাজয় বরণ করেছিলো।

এই ম্যাচের পরে আর ভারতীয় জাতীয় দলের জার্সি পরে খেলতে নামেননি ধোনি। তাই এই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ধোনি এরকম সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে মনে করছেন অনেকেই।আবার অনেকে বলছেন ১৯২৯ নাম্বারটি একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ নাম্বার। এই নাম্বারের মাধ্যমে বোঝায় কোন কাজ শুরু হওয়া অথবা একটি বৃত্ত সম্পন্ন হওয়া, তাই ধোনি এই নাম্বারটি কে বেছে নিয়েছেন। ধোনির ম্যানেজার মিহির দিবাকর বলেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলার পরিকল্পনা নিয়ে রেখেছিলেন।

কিন্তু করোনার এই ভয়া-বহ আবহে বিশ্বকাপ অনেক পিছিয়ে গিয়েছে। তাই স্বাধীনতা দিবসের দিনে ধ্ব-নি তার গা থেকে জার্সি খুলে ফেলার কথা ঘোষণা করলেন। ধোনির এই ঘোষণায় আশা-হত হয়েছেন তার কোটি-কোটি অনুরাগী। সোশ্যাল মিডিয়ায় বারবার তাকে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানানো হচ্ছে। দুঃখে ভারা-ক্রান্ত তার কোটি কোটি ফ্যানের হৃদয়।মহেন্দ্র সিং ধোনির স্ত্রী সাক্ষী সিং ধোনি বরাবরই তার স্বামীর পাশে থেকে তাকে সমর্থন যুগিয়েছেন।

ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে ধোনির অবসরের সিদ্ধান্তকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাক্ষী সিং ধোনি। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ধোনির উদ্দেশ্যে লিখেছেন, “তুমি যেটা অর্জন করেছো তার জন্য তোমার গর্বিত হওয়া উচিত। যেভাবে তুমি নিজেকে ক্রিকেটে নিবেদিত করেছো তার জন্য তোমায় অনেক অভিনন্দন জানালাম। তোমার শিক্ষায় আমি অনেক গর্বিত। আমি জানি তুমি তোমার চোখের জলেই এই প্যাশনকে বিদায় জানাচ্ছো। তোমার আগামী দিনের জন্য অনেক শুভকামনা রইল। মানুষের মনে তুমি যে অনুভূতির সঞ্চার ঘটিয়েছো, মানুষ তা কখনোই ভুলতে পারবেনা।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button