চূড়ান্ত সাফল্যের দোড়গোড়ায় কোভ্যাক্সিন, টিকাদানের পরিকল্পনায় চিঠি কেন্দ্রের!

নিজস্ব সংবাদদাতা: চূড়ান্ত সফলতা পেতে চলেছে কোভ্যাক্সিন। সারাভারত জুড়ে টিকাদানের পরিকল্পনা করার জন্যে চিঠি পাঠালো কেন্দ্র সরকার। করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক কিভাবে দেশের সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়, সেই নিয়েই ব্লুপ্রিন্ট তৈরি করতে চলেছে কেন্দ্র। আশার খবর, এই বছরেই শেষের দিকে পাওয়া যাবে করোনা ভ্যাকসিন। সেই ব্যাপারেই রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলোতে খবর পাঠানো হলো কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে।

করোনার ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে গেলে সেই ভ্যাকসিন দেশের প্রতিটি জনগণের কাছে পৌঁছে দেওয়া প্রয়োজন। সেই কাজে যাতে কোনো রকম পরিকল্পনা গত ত্রুটি না থাকে, সেই ব্যাপারে রূপরেখা তৈরির আদেশ দেওয়া আছে চিঠিতে।

চিঠিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, “কোভিড-১৯ মহা-মা-রি প্রতিরোধের জন্য কার্যকরী পদ্ধতিটি হল টিকাকরণ। এর জন্য প্রতিষেধকের সংরক্ষণ এবং কোল্ড চেনের মাধ্যমে তা যথাযথ বণ্টনের জন্য একটি শক্তিশালী প্রক্রিয়ার দরকার। দৃঢ় পরিকল্পনার মাধ্যমে বিষয়গুলিকে নিশ্চিত করা আবশ্যক”।

প্রথম এবং দ্বিতীয় ধাপ আশানুরূপ সাফল্য পাওয়ার পরেই আগামী ১৫ই অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে যাবে ভারতে তৈরি কোভ্যাক্সিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল। পাঞ্জাবের তিনটি মেডিক্যাল কলেজ, নয়ডার চাইল্ড পিজিআই (The Super Speciality Paediatric Hospital and Post-Graduate Teaching Institut) তে এই ট্রায়াল চালানো হবে। ট্রায়ালের ফলাফল অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বাজারে টিকা আনার ব্যাপারে।

কিছুদিন আগেই পিটিআই সূত্রে পাওয়া খবরে ভার্গব জানিয়েছেন, “ভারতে তৈরি দুটি করোনা প্রতিষেধকের দ্বিতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল প্রায় শেষ। কেন্দ্রীয় সরকার চাইলে এখনই তাঁদের ছাড়পত্র দিতে পারে। অর্থাত্‍ ভ্যাকসিন প্রস্তুত চাইলে তা মানবজাতীর কল্যানে ব্যাবহার করা যেতে পারে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button