দেওয়ালিতে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক সকল ব্যবসায়ীদের, বড় ক্ষতির মুখে চিনা সংস্থা!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমরা ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে ইতিমধ্যে অবগত যে চীন ক্রমশ ভারতের ওপর চাপ সৃষ্টি করে চলেছে। বেড়ে চলেছে সীমান্তে যুদ্ধের আবহাওয়া। এর পাশাপাশি ভারতের উপর নজরদারি চালানোর জন্য ইতিমধ্যে ভারত সরকার ২৩৪ চাইনিজ অ্যাপ বাজারে নিষিদ্ধ করেছে. যার ফলে চীন আর্থিক ক্ষ-তি-র মুখোমুখি হয়েছিলেন। তবে আরও একবার চিন কে শায়েস্তা করতে বড়সড় পদক্ষেপ নিল ভারতের আন্তর্জাতিক বাজার সংস্থা ।

দুর্গাপূজো শেষ। সামনে আসছে কালীপুজো এই কালীপুজো কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন চীনা দ্রব্য ভারতীয় বাজারে রপ্তানি হয়ে থাকে। কিন্তু সেই চীনকে শায়েস্তা করার জন্য সেই সমস্ত চিনা দ্রব্য এবারে কালি পুজোতে ভারতীয় বাজারে নিষিদ্ধ করল ব্যবসায়ী সংস্থাগুলি। এর ফলে মনে করা হচ্ছে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হবে চীন যা তাদের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষ-তি-ক-র।

একটি বিশেষ সূত্রে মাধ্যমে জানা যাচ্ছে যে কালী পূজার সময় ভারতীয় বাজারে প্রায় ৭০ কোটি টাকার রপ্তানি হয়ে থাকে চীন থেকে । কিন্তু সেই চিনা দ্রব্যের উপর নি-ষে-ধা-জ্ঞা জারি করলে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক ক্ষ-তি-র মুখোমুখি হবে চীন ।

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে যেখানে ভারত বর্ষ অনেকটাই নির্ভরশীল চিনা দ্রব্যের উপর সেখানে হঠাৎ করে এই ধরণের সিদ্ধান্ত কতটা যুক্তিযুক্ত হবে তা নিয়ে আছে প্রশ্ন। তবে একথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই যে আগামী দিনে ভারতকে স্বদেশী দ্রব্য অবিলম্বে গ্রহণ করতে হবে ।তবেই হয়ে উঠবে ভারত আত্মনির্ভর।

কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল প্রদীপ খান্ডেলওয়াল জানিয়েছেন, দেওয়ালির অনেক আগে থেকেই এ ব্যাপারে প্রস্তুতি নেওয়া শুরু হয়েছে। রাজ্যে রাজ্যে কনফেডারেশনের আঞ্চলিক চ্যাপ্টার গুলিতে এই বিষয়ে উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে। ছোট ছোট শিল্প সংস্থা বা বে-কা-র যুবকদের এই সব পণ্য উৎপাদনের জন্য সহায়তা করা হচ্ছে। এ জন্য বেশ কয়েকটি জায়গায় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দোকানদাররা নতুন পণ্য নেওয়ার ক্ষেত্রে দেশিয় পণ্য কে অগ্রাধিকার দিচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button