‘একটা অপদার্থ সাংসদ’, নাম না করে ফের দেবকে নিশানা ভারতী ঘোষের!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-যত এগিয়ে আসছে বিধানসভার ভোট ততোই যেন আরো তরতাজা এবং সক্রিয় হয়ে উঠছে রাজনৈতিক দলগুলো ।বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র করে একের পর এক চলতে থাকে জবাব এবং পাল্টা জবাব । বিনা যু-দ্ধে এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারাজ সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো । মূলত মানুষের বিশ্বাস অর্জন করতেই ভোটের আগে মানুষের দরজায় দ্বারস্থ হচ্ছেন বিভিন্ন নেতা-মন্ত্রীরা। তার পাশাপাশি চলছে বাকযুদ্ধ ও ক-টা-ক্ষ।

সম্প্রতি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় এর মন্তব্যকে ঘিরে পাল্টা জবাব দেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর থেমে থাকেনি গেরুয়া শিবির । কেশপুর থেকে বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ রাজ্যপাল কে সমর্থন করে কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়ের এর জবাব এর পাল্টা জবাব দেন । নাম না করে ক-টা-ক্ষ করে অভিনেতা তথা ঘাটাল এর সাংসদ দেব কে ।কেশপুর থেকে ঘাটালের সংসদ দেবকে নজিরবিহীনভাবে ক-টা-ক্ষ করলেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ ।

সাথে তিনি বিভিন্ন ইস্যুতে একের পর এক কথা প্রতিবাদী সুরে আ-ক্র-ম-ণ করে শাসক দলকে । মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুর আনন্দপুর একটি রক্তদান শিবিরে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেত্রী। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি নাম না করে দেবের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা করেন । রাজ্যপাল কে সমর্থন করে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন । রাজ্যপালের সমর্থনে তিনি বলেন “রাজ্যপাল সাংবিধানিক কাজকর্ম করে চলেছেন “।

এরপর তিনি ঘাটালের সাংসদের বি-রু-দ্ধে বলেন যে “ঘাটালের মানুষ ভুল করেছে এমন একজন মানুষকে চিহ্নিত করেছে যাকে টিকিট দিয়ে দেখতে হয় । অপদার্থ জনপ্রতিনিধি পেয়েছেন । এরচেয়ে আমি এমপি হলে কবে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান সফল করতাম ।প্রসঙ্গত উল্লেখ্য জাগদীপ ধনকড় এর বক্তব্য কে ঘিরে কিছুদিন আগে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন” আপনি পুলিশের নিয়ে নি-ন্দা করছেন ,আপনার সাংবিধানিক কোনো জ্ঞান নেই ।

মা-ন-সি-ক হাসপাতালে ভর্তি হন। আপনি একজন থার্ড গ্রেডের রাজ্যপাল।” সেই বক্তব্য এর পাল্টা জবাব দিয়ে কাঠ গড়ায় তুলেছিল শাসক দলকে ভারতী ঘোষ । তিনি বলেন” রাজ্যে স-ন্ত্রা-সে-র পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে । তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে বো-মা পাওয়া যাচ্ছে “। যদিও এ বিষয়ে দেবের কোন প্রতীক এখনো পর্যন্ত মেলেনি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button